দুই রো’হিঙ্গা বো’নকে বিয়ে করে স’ন্তানসহ আ’টক ২ ভাই

সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে দুই ভাই বিয়ে করেছেন উখিয়া ক্যা’ম্পের দুই রো’হিঙ্গা বো’নকে। দুজনের দুই শি’শুস’ন্তানও রয়েছে। এক রো’হিঙ্গা আত্মীয়সহ এই দ’ম্পতিকে আ’টক করেছে পুলিশ।মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) তাদের আ’টক করা হয়।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, তাহিরপুর উপজে’লার উত্তর শ্রীপুর ইউনিয়নের ইন্দ্রপুর গ্রামের আবুল খায়েরের ছেলে ফারুক মিয়া (২৬) তিন বছর আগে ২০১৭ সালে উখিয়া ক্যা’ম্পের রো’হিঙ্গা মৃ’ত ইব্রাহিম আলীর মে’য়ে সুপাইয়া বেগমকে (২০) বিয়ে করেন। বিয়ের পর সুপাইয়ার বো’ন রুবিনারও যাতায়াত ছিল ফারুকদের বাড়িতে। পরে রুবিনা আক্তারকেও (১৮) বিয়ে করে ফারুকের ভাই মোবারক হোসেন (২১)। কাজী বা রেজিস্ট্রি ছাড়াই স্থানীয় আলেম এই দুই বিয়ে পড়ান।

ফারুক ও সুপাইয়া দ’ম্পত্তির ফরহাদ হোসেন নামের ৬ মাস বয়সী এবং মোবারক ও রবিনা আক্তারের রিফাত হোসেন নামের ৪ মাস বয়সী শি’শুস’ন্তান রয়েছে।

সোমবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) পুলিশ খবর পায় টাঙ্গুয়ার হাওরপাড়ের এই এলাকায় রো’হিঙ্গা তরুণ সুপাই মিয়া (২২) ঘোরাঘুরি করছেন। পরে গভীর রাতে পুলিশ তাকে আ’টক করে। তাকে জি’জ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ জানতে পারে, ইন্দ্রপুর গ্রামে সুপাইয়ের দুই ফুফু রয়েছেন। তাদের বাড়িতেই সুপাই এসেছেন। পরে এই দ’ম্পত্তিসহ পাঁচজনকে আ’টক করে পুলিশ।

তাহিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল লতিফ তরফদার পাঁচজন আ’টকের কথা স্বী’কার করে বলেন, ‘দুই রো’হিঙ্গা ত’রুণীকে বি’য়ে করেছেন ইন্দ্রপুর গ্রামের দুই সহোদর। তাদের দুই শি’শুস’ন্তানও রয়েছে। তাদের আত্মীয় রো’হিঙ্গা তরুণসহ পাঁচজনকে আ’টক করা হয়েছে।

জে’লা পুলিশ সুপার (এসপি) মো. মিজানুর রহমান রো’হিঙ্গাদের আ’টকের কথা স্বীকার করেন। জি’জ্ঞাসাবাদের আগে এর বেশি তথ্য জানানো যাবে না বলে তিনি মন্তব্য করেন।

About অনলাইন ডেস্ক

View all posts by অনলাইন ডেস্ক →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *