‘ও যেখানেই খেলুক না কেন খেলুক’ তামিমার বক্তব্য ভাইরাল

দারুণ সম্ভবনা নিয়ে ক্রিকেট শুরু করেছিলেন নাসির হোসেন। তবে একের পর এক প্রেম ও নারী সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে মাঝেমধ্যেই গণমাধ্যমের শিরোনামে ছিলেন তিনি। এরমধ্যে কেটে গেছে দুবছরেরও বেশি সময়। সবশেষ চলতি বছরে ভালোবাসা দিবসে তামিমা তাম্মি নামে এক নারীকে বিয়ে করে আবারো সমালোচনার মুখে পড়েন তিনি। বিয়ের ৭ দিন না পেরোতেই আর্বিভাব ঘটে তার স্ত্রীর সাবেক স্বামী-সন্তানের। এ নিয়ে চারিদিকে চলছে ব্যাপক হইচই। সামাজিক মাধ্যমেও এ বিষয়ে চলছে তর্ক-বিতর্ক। তামিমা আগের স্বামী রাকিব হাসানকে ডিভোর্স না দিয়েই নাসিরকে বিয়ে করেছেন বলে অভিযোগ করেন প্রথম স্বামী রাকিব। শেষ পর্যন্ত বিষয়টি নিষ্পত্তি করতে আদালতে মামলাও করেছেন তিনি।এসব নানা বিষয়ের প্রশ্নের উত্তর দিতে বুধবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) বনানীতে এক প্রেস ব্রিফিংয়ের আয়োজন করেন ক্রিকেটার নাসির ও তামিমা তাম্মি। প্রেস ব্রিফিংয়ের পর ওই দিনই একটি বেসরকারি টেলিভিশনকে সাক্ষাৎকার দেন নাসিরের স্ত্রী তামিমা। যেখানে তামিমার একটি বক্তব্য নিয়ে শোরগোল পড়ে যায় স্যোশাল মিডিয়ায়।বক্তব্যের ওই ভিডিওতে দেখা যায়, নাসিরের খেলা নিয়ে প্রশ্ন করা হলে তামিমা বলেন, অ্যাকচুয়ালি খেলার বিষয়ে আমার তেমন কোন আইডিয়া নেই। ও (নাসির) খেলুক, মাঠে খেলুক, ও যেখানেই খেলুক না কেন বাট খেলুক। হাসতে হাসতে এমন মন্তব্য করেন নাসিরের স্ত্রী। সে সময় নববধূর সঙ্গেই ছিলেন নাসির। ৪ মিনিট ১৪ সেকেন্ডের সাক্ষাৎকার দেওয়া ওই ভিডিওটির একটি অংশটি কেটে অনেকেই ফেসবুকে শেয়ার করেন। যা মুহূর্তের মধ্যে ভাইরাল হয়ে যায়।তবে ভিডিও’র শেষ অংশে দেখা যায়, সাপোর্টের বিষয়ে জানতে চাইলে তামিমা জানান, রিজিকের মালিক আল্লাহ। আমি চাইবো ও (নাসির) আবারো ভালো ভাবে ক্রিকেট প্রাঙ্গণে ফিরে আসুক। ক্রিকেট প্রাঙ্গণ, নাকি জাতীয় দলে জানতে চাইলে হাসতে হাসতে তামিমা বলেন, অ্যাকচুয়ালি খেলার বিষয়ে আমার তেমন কোন আইডিয়া নেই। ও খেলুক, মাঠে খেলুক, ও যেখানেই খেলুক না কেন বাট খেলুক।এরপরই নাসির বলেন, তামিমা আমার কাছে চাইছে যে, বাংলাদেশের হয়ে এক ম্যাচও যেন আমি খেলি। ও (তামিমা) অনেক হেল্পফুল, তার পক্ষ থেকে আমাকে অনেক সাপোর্ট দেয়। গেল ১৪ ফেব্রুয়ারি বিয়ে করেছেন ক্রিকেটার নাসির হোসেন। বিয়েকে স্মরণীয় করতে ভালোবাসা দিবসটিকেই বেছে নেন তিনি। নাসিরের স্ত্রীর নাম তামিমা তাম্মি। পেশায় কেবিন ক্রু। কিন্তু বিয়ের সপ্তাহ পার না হতেই চরম বিতর্ক শুরু হয়।২০ ফেব্রুয়ারি সকাল থেকে সামাজিকমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে তামিমার আরেক স্বামী ও সন্তানের ছবি। রাকিব নামে ওই স্বামীর সঙ্গে তার বিয়ে হয় ১১ বছর আগে। সেই ঘরে কন্যা সন্তানের বয়স এখন নয় বছর।

বিয়ে করে আলোচনায় ক্রিকেটার নাসির হোসেন। আলোচনার পাশাপাশি সমালোচনার মুখে পড়েছেন তিনি। কারণ হিসেবে ধরা হচ্ছে- আগের স্বামীকে তালাক না দিয়েই নাসিরকে বিয়ে করেছেন তামিমা তাম্মি। যদিও এ বিষয়ে নিজের বক্তব্য প্রকাশ করেছেন নাসির-তামিমা।নাসির ইস্যুতে আলোচিত তামিমা ও তার আগের স্বামী রাকিবকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভিন্ন মত দিচ্ছেন অনেকে। শোবিজ অঙ্গনের তারকারাও স্ট্যাটাস দিয়েছেন বিষয়টি নিয়ে। নবাগত অভিনেত্রী হুমায়রা সুবাহ থেকে শুরু করে সিদ্দিকের সাবেক স্ত্রী মারিয়া মিম থেকে পরিচিত অভিনেত্রী শবনম ফারিয়া। যার যার ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন বিষয়টি নিয়ে।এবার নিজের ফেসুবকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন ঢালিউডের আলোচিত নায়িকা মিষ্টি জান্নাত। বিভিন্ন ইস্যুতে একাধিকবার আলোচনায় এসেছেন তিনি। নিজের ভেরিফায়েড পেজে মিষ্টি জান্নাত লিখেছেন, ‘সাকিব-নাসিরদের ব্যক্তিগত বিষয় নিয়ে নাড়াচাড়া করাতে কি আনন্দ আছে তা খুঁজে পাচ্ছি না। পৃথিবীর আর কোনো দেশে এমন আছে কিনা জানি না, যারা অন্যের ব্যক্তিগত বিষয় নিয়ে আলোচনা করে এতো সময় ব্যয় করে ও মজা পায়।’তিনি আরও লিখেছেন, ‘অন্যের ব্যক্তিগত বিষয় নিয়ে যত সময় ব্যয় করেন এর অর্ধেক সময় নিজেকে নিয়ে চিন্তা করলে আপনি এবং এই জাতি দুই অনেক দূর এগিয়ে যাবে। কেউ খারাপ কিছু করলে ঐটার জন্য কোর্ট কাচারী ও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ আছে। বিচার আচার আপনি আমি না করলেও চলবে।’এবার ডিভোর্স নিয়ে মুখ খুললেন অভিনেত্রী নুসরাত। তিনি দাবি করেছেন, তাঁকে ডিভোর্স লেটার পাঠানোর কোনো ঘটনা ঘটেনি। কলকাতা থেকে প্রকাশিত ভারতীয় গণমাধ্যমগুলোয় যে খবর প্রকাশিত হয়েছে, তা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। তিনি জানিয়েছেন, তিনি এই মুহূর্তে কলকাতার বাইরে। সময় হলেই তাঁর সঙ্গে নিখিলের বিচ্ছেদের বিষয়টি নিয়ে তিনি কথা বলবেন।গত সোমবার কলকাতা থেকে প্রকাশিত বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়, অভিনেত্রী ও সাংসদ নুসরাত জাহানের স্বামী নিখিল জৈন বিবাহবিচ্ছেদ চাইছেন। বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও এ খবর ছড়িয়ে পড়ে। নিখিলের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘ডিভোর্স নিয়ে এ মুহূর্তে কোনো কথা বলব না। এ ব্যাপারে যা বলার তা পরে বলবেন।’স্থানীয় গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, বেশ কিছুদিন হলো, স্বামীর ঘর ছেড়ে মা–বাবার সঙ্গে থাকছেন নুসরাত। নিখিলকে নিয়ে সর্বশেষ পোস্ট দিয়েছেন ২০২০ সালের ৬ মে। এরপর ইনস্টাগ্রামে জীবনসঙ্গীকে নিয়ে আর কোনো পোস্ট দেননি তিনি। বরং নুসরাত আর নিখিল দুজনই দুজনকে ‘আনফলো’ করে দিয়েছেন। জানা গেছে, বেশ কিছুদিন ধরে আলাদা থাকেন তাঁরা। নুসরাত মা, বাবা এবং বোনের সঙ্গে থাকেন তাঁর বালিগঞ্জের বাড়িতে। সর্বশেষ নুসরাতের জন্মদিনের অনুষ্ঠানেও নিখিল আসেননি। বরং দেখা গেছে ‘বন্ধু’ অভিনেতা যশ দাশগুপ্তকে। কিছুদিন আগেই মুক্তিপ্রাপ্ত ব্রাত্য বসুর ছবি ‘ডিকশনারি’র উদ্বোধনীতেও ছবির নায়িকা নুসরাতের সঙ্গে নিখিলকে দেখা যায়নি। এসব পরিস্থিতি বিশ্লেষণ করে সংবাদপত্রগুলো বলছে, নিখিল ও নুসরাতের পরস্পর কাছাকাছি না থাকা, নুসরাতের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে নতুন বন্ধু যশের ঘন ঘন উপস্থিতি বলে দিচ্ছে নিখিলের সঙ্গে নুসরাতের সম্পর্ক আর আগের মতো নেই।জানা গেছে, গত বছর শুরুর দিকে নুসরাত জাহান ঘুমের ওষুধ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। পরে তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। যদিও জৈন পরিবারের পক্ষ থেকে এই ঘটনার কথা অস্বীকার করা হয়। এমনকি নুসরাত সংবাদমাধ্যমে বক্তব্য দিয়েছিলেন, তিনি নাকি ভুল করে বেশি ঘুমের ওষুধ খেয়ে ফেলেছিলেন। এদিকে শোনা যাচ্ছে, নতুন সম্পর্কে জড়িয়েছেন নুসরাত। তাঁর নয়া প্রেমিক আর কেউ নন, যশ দাশগুপ্ত। ২০২০ সালের জুলাইয়ে ‘এসওএস কলকাতা’ ছবির শুটিংয়ের সময় ঘনিষ্ঠতা বাড়ে যশ আর নুসরাতের। এরপর যশের সঙ্গে ঘুরে বেড়াতে দেখা গেছে নুসরাতকে। কিছুদিন আগেই রাজস্থানে ঘুরতে গিয়েছিলেন তাঁরা। তা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কোনো লুকাছাপাও করেননি। দিব্যি ছবি দিয়ে নিজেরাই জানিয়েছেন। নুসরাত আর যশ ইনস্টাগ্রামে নিজেদের ছবি পোস্ট করেছেন। যখন নুসরাত আর যশের প্রেম নিয়ে সমালোচনা চলছে, তখনই নিজেদের একটি রোমান্টিক ছবি পোস্ট করে নুসরাত ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘মানুষ তো কথা বলবেই।’ অন্যদিকে নুসরাতের নতুন প্রেম নিয়ে যখন বইছে সমালোচনার বন্যা, তখনও পাশে আছেন নিখিল। সবাইকে অনুরোধ করেছেন ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে কোনো মন্তব্য না করতে।তবে নুসরাতের সঙ্গে সম্পর্কে ছেদ পড়লেও তাঁর পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ রেখেছেন নিখিল। কিছুদিন আগে নুসরাতের বোন নুজহাত জাহানের সঙ্গে ছবি পোস্ট করেছিলেন তিনি। নুজহাত সেখানে ‘সবকিছুর জন্য ধন্যবাদ’ জানিয়েছিলেন দুলাভাইকে। শুধু তা-ই নয়, নুসরাতের প্রতি ভালোবাসার কথাও আকারে–ইঙ্গিতে বুঝিয়েছেন নিখিল ১৪ ফেব্রুয়ারি ভালোবাসা দিবসে । সেদিন একটি পোস্ট করেছিলেন তিনি, যার সারমর্ম দাঁড়ায়, ‘কেউ একজন বদলে গেলেও আমি একই আছি।’২০১৯ সালের ১৯ জুন তুরস্কে বিয়ে করেছিলেন নুসরাত জাহান ও নিখিল জৈন। কলকাতার ছেলে নিখিল পেশায় ফ্যাশন ডিজাইনার ও ব্যবসায়ী। তবে চলচ্চিত্রের সঙ্গে তাঁর কোনো যোগাযোগ নেই। এমপি বিড়লা ফাউন্ডেশনে পড়াশোনার পর যুক্তরাজ্যের ওয়ারউইক বিশ্ববিদ্যালয়ে ম্যানেজমেন্টের ওপর পড়াশোনা করেছেন নিখিল। ২০১৮ সালে পূজায় ব্যবসায়ী নিখিল জৈনের শাড়ির ব্র্যান্ডের বিজ্ঞাপনের মুখ হয়েছিলেন নুসরাত জাহান। এই কাজের সূত্রেই তাঁদের পরিচয়। অল্প দিনেই সম্পর্ক গাঢ় হয়। এরপর তাঁরা দুজন বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন।

About অনলাইন ডেস্ক

View all posts by অনলাইন ডেস্ক →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *