অভাবের তাড়না’য় বিক্রি ক’রে দে’য়া সন্তান দুই মাস প’র ফির’ল মায়ে’র কো’লে!

অভাবের তাড়নায় এক বছর বয়সী কন্যা ফাতেমাকে বিক্রি করে দেন টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজে’লার বাবু মল্লিক। সে ঘটনার দুই মাস পর মে’য়েটিকে ফিরে পেয়েছেন মা রাজিয়া খাতুন। সোমবার রাতে টাঙ্গাইল পৌর এলাকা থেকে পু’লিশ ও বেসরকারি সংস্থা ব্র্যাকের সহযোগিতায় শি’শুটিকে উ’দ্ধা’র করা হয়।

ব্র্যাক বেলকুচি শাখার মানবাধিকার ও আইন সহায়তা কর্মসূচির এইচআরএলএস অফিসার চন্দনা খাতুন বলেন, সোমবার রাতেই শি’শুটিকে উ’দ্ধা’র করে তার বাবা-মায়ের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

তিনি বলেন, দুই মাস আগে ব্র্যাক আইন সহায়তা অফিসে গিয়ে বাবু মল্লিকের বি’রু’দ্ধে শি’শু কন্যাকে বিক্রি করে দেয়ার অ’ভিযোগ করেন তার স্ত্রী’ রাজিয়া খাতুন। অ’ভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে পু’লিশের সহায়তায় চলতে থাকে শি’শুটির খোঁজ।

মে’য়েকে ফিরে পাওয়ায় পু’লিশ ও ব্র্যাককে ধন্যবাদ জানান শি’শু ফাতেমা’র মা রাজিয়া খাতুন।শি’শুটির বাবা বাবু মল্লিক বলেন, অভাবের সংসারে কোনো কূল-কিনারা পাচ্ছিলাম না। এসবের মধ্যেই দুধের শি’শুটিকে ফেলে তার মা বাপের বাড়িতে চলে যায়। ছোট বাচ্চাটির মায়ের অভাব পূরণ করতেই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

চৌহালী থা’নার ওসি রফিকুল ই’স’লা’ম জানান, বাবু মল্লিক একাধিক বিয়ে করেছেন। স্ত্রী’-সন্তানদের ভরণ-পোষণ করতে পারেন না। সংসারের অভাব-অনটন নিয়ে স্ত্রী’ রাজিয়ার সঙ্গে প্রায়ই ঝগড়া হতো। এক পর্যায়ে শি’শুকন্যা ফাতেমাকে রেখে স্ত্রী’ রাজিয়াকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেন।

এরপর শি’শুটিকে পাবনার কাশিনাথপুর এলাকার এক নিঃসন্তান দম্পতির কাছে বিক্রি করে দেন বাবু মল্লিক ও তার বাবা আমজাদ হোসেন। ওই দম্পতি শি’শুটিকে নিজেদের সন্তানের মতোই লালন-পালন করছিলেন। ওই অবস্থায় মা রাজিয়া খাতুনের অ’ভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে টাঙ্গাইল শহর থেকে শি’শুটিকে উ’দ্ধা’র করা হয়েছে।

About অনলাইন ডেস্ক

View all posts by অনলাইন ডেস্ক →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *