উল্টো মা’থা নিয়েই পার করলে’ন ৪৪ বছর!

কেউ পৃথিবিতে স্বাভাবিকভাবে জন্মগ্রহণ করে বেশিদিন পৃথিবীতে থাকতে পারে না, আবার কেউ অস্বাভাবিকভাবে জন্ম নিয়েও স্বাভাবিক জীবনযাপন করে যাচ্ছে। তেমনি এক ব্যক্তি উল্টো মাথা নিয়ে জন্মানোর পর ৪৪ বছর পার করে ফেলেছেন।

উল্টো মাথা নিয়ে জন্মানোর পর ওই ব্যক্তির পরিবারকে চিকিত্সকরা জানিয়েছিলেন যে, তিনি ২৪ ঘণ্টার বেশি বেঁচে থাকতে পারবেন না। উত্তর-পূর্ব ব্রাজিলের রাজ্য বাহিয়া থেকে ক্লোদিও ভিয়েরা ডি অলিভারিয়া জন্মগ্রহণ করেছিলেন আর্থ্রোগ্রিপোসিস মাল্টিপ্লেক্স কনজেনাইটা নামক একটি বিরল রোগ নিয়ে।

এই রোগে পায়ের পেশিগুলোতে অ্যাট্রোফি রয়েছে, এ কারনে তার পায়ের সঙ্গে বুক আটকে রয়েছে এবং তার মাথাটি পেছনের দিকে। ফলে তিনি সবকিছুই উল্টোভাবে দেখেন। অলিভারিয়া জীবনের অনেক কিছু থেকে বঞ্চিত হয়েছেন ঠিকই কিন্তু জীবনের প্রতি ক্ষেত্রে তিনি নিজেকে বাচঁতে শিখিয়েছেন।

তিনি জানিয়েছেন, নিঃশ্বাস নিতে, দেখতে, খেতে এবং পানি পান করতে তার কোনো সমস্যা হয় না। পাশাপাশি তিনি প্রেরণামূলক বার্তা দিয়ে নানা ভিডিও করেন।তিনি আরও জানিয়েছেন, আমি কখনো মনে করিনি আমার জীবনে কোনো অসুবিধা আছে। আমার জীবন আর ৫টা সাধারণ জীবনের মতো।

সূত্র: ডেইলি মেইল

About অনলাইন ডেস্ক

View all posts by অনলাইন ডেস্ক →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *