অভিনেত্রী ‘ভাবনা’ ও ‘তার মা’কে অ;শ্লীল ক’মেন্ট করা সেই ‘যুবক চাইলেন’ ‘ক্ষমা’

তরুণ অভিনেত্রী আশনা হাবিব ভাবনা ও তাঁর মা-বোনকে অশ্লীল মন্তব্যকারী সেই তরুণ প্রকাশ্যে ক্ষমা চেয়েছেন। পুলিশের সাইবার ক্রাইম ইউনিট সেই তরুণকে খুঁজে বের করেছে। এরপর সেই তরুণ তাঁর কৃতকর্মের জন্য ভাবনা ও তাঁর পরিবারের উদ্দেশে ফেসবুকে ক্ষমা চাওয়ার ভিডিও পোস্ট করেন।






গেল মা দিবসে অভিনয়শিল্পী আশনা হাবিব ভাবনা তাঁর মা ও বোনকে নিয়ে ফেসবুকে একটি পোস্ট করেন। সেই পোস্টের নিচে ভাবনা ও তাঁর মা–বোনের পোশাক নিয়ে অনেক অশ্লীল মন্তব্য জমা হয়। সেই মন্তব্যকারীদের একজন নাসিব রাহাত। সম্প্রতি তিনি তাঁর ফেসবুকে ভিডিও বার্তা পোস্ট করে ক্ষমা চেয়েছেন। বিষয়টি কীভাবে ঘটল? জানতে চাইলে ভাবনা জানালেন বিস্তারিত।

আজ রোববার বিকেলে প্রথম আলোকে ‘ভয়ংকর সুন্দর’খ্যাত অভিনেত্রী ভাবনা বলেন, ‘আমরা শিল্পীরা প্রতিনিয়ত সাইবার বুলিংয়ের শিকার হই। কিন্তু আমার মা-বোনকেও যখন পোশাক নিয়ে আজেবাজে কথা শুনতে হলো, তখন আমি খুব ভেঙে পড়ি। বিষয়টি অভিনয়শিল্পী সংঘের সভাপতি শহীদুজ্জামান সেলিম ভাইকে ফোন করে জানাই। তিনি নিজ উদ্যোগে আমাকে নিয়ে পুলিশের সাইবার ক্রাইম বিভাগে যান। আমার অভিযোগ জানাই। তারপর পুলিশ ব্যবস্থা নেওয়ায় মন্তব্যকারীদের একজন ক্ষমা চেয়ে ভিডিওটি পোস্ট করে। এটা সম্ভব হয়েছে সেলিম ভাইয়ের আন্তরিক উদ্যোগে। এ জন্য তাঁকে ধন্যবাদ জানাতে চাই।’






ক্ষমা করেছেন কি না, জানতে চাইলে ভাবনা বলেন, তিনি যদি সত্যিই মন থেকে তাঁর ভুলটা বুঝতে পারেন, তাহলে তিনি তাঁর বাজে মন্তব্যের কথা ভুলে যাবেন। ছোট ও বড় পর্দার এই অভিনেত্রী আরও বলেন, ‘আমি ছোট মানুষ। তবে আমি অন্যায়ের সঙ্গে কোনো দিন আপস করিনি, করি না।

অন্যায় হলে আমি সব সময় চিৎকার করেছি। সে জন্যই এমন একটি উদাহরণ তৈরি হলো। এরপর সে অন্য কারও পোস্টে বাজে মন্তব্য করার আগে একবার ভাববে। এই ভিডিও যারা দেখেছে, তারাও একবার ভাববে।’

ভিডিওতে নাসিব রাহাত নামের ওই তরুণ বলেন, ‘আমি মো. নাসিব রাহাত। আমি পড়াশোনা করি। মা দিবসে আশনা হাবিব ভাবনা তাঁর মা, বোনকে নিয়ে একটি ভিডিও আপলোড করেন ফেসবুকে। সেখানে আমি ভাবনার পরিহিত পোশাক নিয়ে অশালীন মন্তব্য করি, যা করা আমার মোটেও উচিত হয়নি।






এটি একটি সাইবার ক্রাইম অপরাধ। এ জন্য আমি ক্ষমাপ্রার্থী। আপনারা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সাইবার বুলিং থেকে বিরত থাকবেন।’

About অনলাইন ডেস্ক

View all posts by অনলাইন ডেস্ক →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *