১৫ জুন থেকে শুরু ‘অনার্স ও মাস্টার্স’ পর্যায়ের ‘স্থগিত’ পরীক্ষা

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সেশনজট নিরসনকল্পে অনার্স ও মাস্টার্স পর্যায়ের স্থগিত সব পরীক্ষা আগামী ১৫ জুন থেকে সশরীরে নেওয়া হবে। তবে করোনা পরিস্থিতির উন্নতি না হলে সে ক্ষেত্রে আগামী ১ জুলাই থেকে অনলাইনে বিভিন্ন বর্ষের চূড়ান্ত পরীক্ষা নেওয়া হবে।






মঙ্গলবার (১ জুন) বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কাউন্সিলের এক ভার্চুয়াল সভায় এসব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন উপাচার্য অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামান।

উপস্থিত ছিলেন, উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক মুহাম্মদ সামাদ, উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক এ এস এম মাকসুদ কামাল, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মমতাজ উদ্দিন আহমেদ, বিভিন্ন অনুষদের ডিন, বিভাগীয় চেয়ারম্যান, ইনস্টিটিউটের পরিচালক ও একাডেমিক কাউন্সিলের সদস্যরা।

সভায় জানানো হয়, সেশনজট নিরসনকল্পে অনার্স ও মাস্টার্স পর্যায়ের স্থগিত সব পরীক্ষা আগামী ১৫ জুন থেকে সশরীরে নেওয়া হবে। সংশ্লিষ্ট বিভাগ ও ইনস্টিটিউট নিজ নিজ শিক্ষার্থীদের সঙ্গে যোগাযোগ করে আবাসিক হল না খোলার শর্তে পরীক্ষাগুলো গ্রহণ করবে। যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করা হবে।






একই শর্তে অন্যান্য সেমিস্টার ফাইনাল, বার্ষিক কোর্স ফাইনাল ও ব্যাবহারিক পরীক্ষাগুলো অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ১ জুলাই থেকে অনুষ্ঠিত হবে। তবে করোনা পরিস্থিতির অবনতি ঘটলে সশরীরে পরীক্ষা গ্রহণ সম্ভব না হলে হার্ডওয়্যার ও ওয়েটল্যাব ভিত্তিক ব্যাবহারিক পরীক্ষা ছাড়া সব পরীক্ষা অনলাইনে নেওয়া হবে।

সভায় সেশনজট নিরসন ও শিক্ষার্থীদের একাডেমিক ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়ার লক্ষ্যে ‘ক্ষতি পুনরুদ্ধার পরিকল্পনা’ প্রণয়ন করা হয়েছে। সে অনুযায়ী সেমিস্টার পদ্ধতির ক্ষেত্রে পরীক্ষাসহ সেমিস্টারকাল ছয় মাসের পরিবর্তে চার মাস এবং বার্ষিক কোর্স পদ্ধতির ক্ষেত্রে ১২ মাসের পরিবর্তে আট মাস করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। পরীক্ষার ফল দ্রুত প্রকাশসহ পরীক্ষার শিফটসংখ্যা বৃদ্ধিরও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

About অনলাইন ডেস্ক

View all posts by অনলাইন ডেস্ক →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *