কুমিল্লায় ‘কোল্ডস্টোরেজের’ ‘বিষাক্ত গ্যাসে’ মা’রা গেল ‘৯ টি গরু’

গতকাল মঙ্গলবার কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার কাবিলা বাজার এলাকায় কোল্ডস্টোরেজ ধসে পড়লে বিষাক্ত গ্যাসে পাশের খামারের ৯ গরু মারা যায়। কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার কাবিলা বাজার এলাকায় ৫০ বছরের পুরোনো একটি কোল্ডস্টোরেজ ধসে পড়েছে। এতে কোল্ডস্টোরেজের বিষাক্ত গ্যাসের প্রভাবে পাশের একটি খামারের নয়টি গরুর মৃত্যু হয়েছে।

এ ছাড়া কোল্ডস্টোরেজটিতে সংরক্ষিত প্রায় ৭০ হাজার মণ আলু ক্ষতির মুখে পড়েছে। গতকাল মঙ্গলবার ভোরে বিকট শব্দে এ ঘটনা ঘটে। তবে এতে প্রাণহানির কোনো ঘটনা ঘটেনি।






এদিকে মোকাম কোল্ডস্টোরেজ নামের এই ভবনটির মালিক নিমসার এলাকার গোলাম সারোয়ার। তার কাছ থেকে ফরহাদ হোসেন নামে আরেকজন এটি ভাড়া নিয়ে চালাচ্ছিলেন। কোল্ডস্টোরেজের পাশের সিয়াম ডেইরি ফার্মের মালিকও তিনি। ভবনটি ধসে পড়ার কারণে ফার্মের একটি দেয়ালও ভেঙে পড়ে।

ভাঙা অংশ দিয়ে কোল্ডস্টোরেজের বিষাক্ত গ্যাস গরুর ফার্মে ছড়িয়ে যায়। এতে ফার্মের নয়টি গরু মারা যায় ও একটি গরু অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরে সেটিকে জবাই করে ফেলা হয়। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা এসে ফার্ম থেকে ৬১টি গরু জীবিত উদ্ধার করেন। শুধু গরুর খামারেই ২০ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানান ফার্মের ম্যানেজার গৌরঙ্গ নন্দি।






এদিকে ভবন ধসের কারণে কোল্ডস্টোরেজটিতে সংরক্ষিত ৭০ হাজার মণ আলু ক্ষতির মুখে পড়েছে। কোল্ডস্টোরেজ ধসের খবরে আলু ব্যবসায়ী ও কৃষকরা ঘটনাস্থলে ভিড় জমাতে থাকেন। স্টোরেজে সংরক্ষিত তাদের আলু নিয়ে চিন্তিত হয়ে পড়েন। এ ছাড়া সকাল থেকে গুঁড়িগুঁড়ি বৃষ্টিতে আলুগুলো পচে যাওয়ার আশঙ্কাও রয়েছে।

স্থানীয় আলু ব্যবসায়ী ইউনুস মেম্বার জানান, তিনি এই কোল্ডস্টোরেজে প্রায় ২০ হাজার বস্তা আলু রেখেছেন। ধসের কারনে আলু নিয়ে চিন্তিত আছেন। তিনি আলুর ক্ষতিপূরণ দাবি করেন। এ ছাড়া আলু ব্যবসায়ী সুলতান মিয়া, কামাল উদ্দিন ও রফিক মেম্বারও তাৎক্ষণিকভাবে ক্ষতিপূরণের দাবি জানান।






কুমিল্লা ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার আলী আজম জানান, কুমিল্লা সদর ও চান্দিনা থেকে ফায়ার সার্ভিসের পাঁচটি ইউনিট উদ্ধার কাজে অংশ নেয়। চার ঘণ্টা অভিযান শেষে দেয়াল কেটে ফার্মের গরুগুলোকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে আনা হয়েছে।

এ বিষয়ে বুড়িচং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাবিনা ইয়াছমিন বলেন, খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নির্ণয়ে কাজ চলছে। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে তদন্ত টিম গঠন ও সহযোগিতা করা হবে।

About অনলাইন ডেস্ক

View all posts by অনলাইন ডেস্ক →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *