আমি এখন শামুকের মতো হয়ে গেছি: মৌসুমী

‘লুকিয়ে থাকতে চাইলেই লুকিয়ে থাকা যায়। সামনে যেটা থাকে সেটা শরীর। আমি এখন শামুকের মতো হয়ে গেছি। আড়াল করে নিজেকে নিয়ে আছি, এটাই স্বস্তি’—এমন কিছু কথা লিখে কিছু একটার ইঙ্গিত দিলেন চিত্রনায়িকা মৌসুমী। তবে পুরোটা বললেন না। বুধবার (২৩ জুন) ইনস্টাগ্রামে করা তার পোস্টে এমনই অভিমান ঝরলো। তিনি আরও লিখেছেন, ‘যখন দিনের আলো দেখার সুযোগ হয়, নিজেকে বেমানান লাগে।’

বলেছেন সিলেটের বানভাসি মানুষের কথাও, ‘সিলেটবাসীর কাছে ছুটে যেতে ইচ্ছে করে। হয়তো সুযোগ হলে যাবো, আপনারা সবাই তাদের জন্য দোয়া করবেন।’ তবে তার সাম্প্রতিক করা ইনস্টাগ্রামের একাধিক পোস্টে এমন অভিমান, চাপা-ক্ষোভ ফুটে উঠছে। অন্যদিকে সামাজিক ও গণমাধ্যমে বক্তব্য এসেছে তার স্বামী চিত্রনায়ক ওমর সানীর। তিনি জানান, এখন বেশ ভালো আছেন তারা। সবার দোয়া ও ভালোবাসায় সব অভিমান মিটে গেছে। একই ছাদের নিচে ও ঘরে বসবাস করছেন মৌসুমী ও সানী।

তবে মৌসুমীর এমন পোস্ট অনেক কিছুই ভাবাচ্ছে তার ভক্তদের। আসলেই কি ভালো আছেন এই তারকা দম্পতি?গত কয়েক দিন ধরেই গুঞ্জন চলেছে ওমর সানী-মৌসুমীর সংসার ভাঙনের। তা আরও জোরদার হয় বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতিতে সানীর দেওয়া অভিযোগপত্রে। তিনি জানান, চিত্রনায়ক জায়েদ খান তাদের ২৭ বছরের সুখের সংসার ধ্বংস করে দিচ্ছেন।

এই কারণেই এর আগে অভিনেতা-প্রযোজক ডিপজলের ছেলের বিয়েতে বাধে সংঘর্ষ। সানী সপাটে চড় মারেন জায়েদ খানকে। অভিযোগ আছে, জায়েদ খানও পিস্তল দিয়ে গুলি করার হুমকি দিয়েছেন। চড় মারার কারণ হিসেবে সানী দাবি করেন, গত চার মাস ধরে জায়েদ মৌসুমীকে ডিস্টার্ব ও অসম্মান করছে।

তবে মৌসুমীই উল্টো জানিয়ে দেন, জায়েদ খান ভালো ছেলে। এটা সানী ও তার দাম্পত্য জীবনের ভুল বোঝাবুঝি। এরপর থেকেই সানীর দিকে আঙুল তুলেছেন অনেকে।

তবে ১৬ জুন মধ্যরাতে সানী একটি ছবি প্রকাশ করেন। যেখানে দেখা যায়, খাবার টেবিলে মুখোমুখি বসে আছেন মৌসুম ও তিনি। এরপরই সানী জানিয়েছিলেন তারা ভালো আছেন!

About অনলাইন ডেস্ক

View all posts by অনলাইন ডেস্ক →

Leave a Reply

Your email address will not be published.